দেওয়া হবে বিনা মূল্যের সাত কোটি ২০ লাখ বই

দেওয়া হবে বিনা মূল্যের সাত কোটি ২০ লাখ বই

প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের (তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণি) মাঝে বাংলা ও ইংরেজি ভার্সনের বই বিনা মূল্যে বিতরণ করবে সরকার। এ জন্য সাত কোটি ২০ লাখ ৯ হাজার ৩৭৩টি বই মুদ্রণ, বাঁধাই ও সরবরাহের ক্রয় প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। ১৩২ কোটি ৪১ লাখ ৫১ হাজার ৭৪৬ টাকা ব্যয়ে এসব বই সরবরাহের কাজ পেয়েছে দেশীয় ৯৮টি প্রতিষ্ঠান। কমিটি এটিসহ ৫৬৫ কোটি ৮১ লাখ টাকা ব্যয়ে তিনটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির ভার্চুয়াল সভায় ক্রয় প্রস্তাবগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়। সভা শেষে অর্থমন্ত্রী অনুমোদিত ক্রয় প্রস্তাবগুলোর বিভিন্ন দিক সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন। এ সময় তিনি জানান, সব ঠিক থাকলে বরাবরের মতো আগামী বছরও বই উৎসব করা হবে।

সভা শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘প্রতি বছর আমরা উৎসবমুখর পরিবেশে বই বিতরণ করে থাকি। এ বছরও আমরা সেটি করব ইনশাআল্লাহ। এ জন্য সাত কোটি ২০ লাখ ৯ হাজার ৩৭৩টি বই মুদ্রণ, বাঁধাই ও সরবরাহের ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, বই সরবরাহের জন্য দরপত্র আহ্বান করলে এক হাজার ২২টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। যাচাই-বাছাই করে তাদের মধ্য থেকে ৯৮টি প্রতিষ্ঠানকে কাজ দেওয়া হয়। অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ও কম দাম উল্লেখ করা প্রতিষ্ঠানই কাজ পেয়েছে। সঠিকভাবে যাতে কাজ সম্পন্ন হয় সে জন্য সংশ্লিষ্ট সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান থেকে ১০ শতাংশ সিকিউরিটি মানি নেওয়া হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ক্রয় কমিটি জি-টু-জি ভিত্তিতে ৭৫ হাজার টন মেরিন অয়েল আমদানির একটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন করেছে। এর জন্য ব্যয় হবে ২১৬ কোটি ৭০ লাখ টাকা। এ ছাড়া জুলাই-ডিসেম্বর সময়ের জন্য আন্তর্জাতিক কোটেশনের মাধ্যমে আরো ৭৫ হাজার টন মেরিন ফুয়েল আমদানির প্রস্তাব করা হয়েছিল। তবে বর্তমানে জ্বালানি তেলের দাম কম হওয়ায় জি-টু-জি ভিত্তিতে তা আমদানি করলে সুবিধা হবে। তাই ৭৫ হাজার টন মেরিন ফুয়েলও জি-টু-জি ভিত্তিতে আমদানির জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ জন্য ব্যয় হবে ২২২ কোটি টাকা।