নওগাঁ শহরকে আধুনিক ও পরিচ্ছন্ন  শহরে পরিণত করতে চায় রাসেল

নওগাঁ শহরকে আধুনিক ও পরিচ্ছন্ন  শহরে পরিণত করতে চায় রাসেল

স্টাফ রিপোর্টার: নওগাঁ পৌর নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছেন ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল। তিনি নওগাঁ চেম্বার অব কর্মাস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে নওগাঁ পৌর নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
সোমবার দুপুর ১২টায় শহরের বাঙ্গাবাড়ীয়া মহল্লায় তার প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ ইশতেহার ঘোষণা করেন। 
তিনি বলেন, পৌর নির্বাচন করবেন জানিয়ে আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন। মনোনয়ন উত্তোলণের পর থেকে বিভিন্ন বাধার স্বীকার হয়েছি। যাচাই-বাছাইয়ে মনোনয়ন বাতিল করা হলেও পরে হাইকোর্ট থেকে বৈধতা পায়। ফলে মাঠে নামতে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে।
নির্বাচনী ইশতেহারে তিনি উল্লেখ করেছেন, আমি অন্যদের মতো নই। লোভের আগুনে উত্তপ্ত হয়ে আমি কোন দিন অন্যের হক নষ্ট করিনি। নিজেরস্বার্থের জন্য ক্ষতাবানদের কাছে মাথা নত করিনি। নিজের বিবেককে বন্ধক রেখে দুর্নীতিবাজদের সঙ্গে উল্লাস নৃত্যে সামিল হইনি-বরং প্রতিবাদ করেছি, মানুষের কথা বলেছি, দেশের কথা বলেছি। আপনাদের মুখের দিকে তাকিয়ে আমি আজও দাঁড়িয়ে আছি-আমি আজও বলে যাচ্ছি এবং অনবরত বলেই যাবো। বিগত বছরগুলিতে আপনারা আমার কথা শুনেছেন এবং আমার কাজ দেখেছেন। এই প্রিয় শহরের তরুণ-তরুণী, যবক-যুবতী এবং সম্মানীত বয়োযেষ্ঠগণের অনেকেই আমাকে চেনেন এবং জানেন। আমি প্রচলিত রাজনীতির ¯্রােতে গা ভাসাইনি এবং ভাসাবোও না ইনশাল্লাহ্। সৃষ্টির সেরা জীব মানুষ হিসেবে আল্লাহ আমাকে যে জ্ঞান-বুদ্ধি-প্রজ্ঞা দান করেছেন তা দিয়ে আমি কেবল নিজের কথা চিন্তা করিনি, আপনাদের কথাও চিন্তা করেছি। আমি নওগাঁর কথা ভাবি, নওগাঁবাসীর কথা ভাবি। আর সেই ভাবনা থেকেই নিজেকে বহুদিন ধরে প্রস্তুত করেছি একজন যোগ্য মেয়র হিসেবে আপনাদের সেবায় আমার মন-মননশীলতা-চিন্তা চেতনা-চুদ্ধি প্রজ্ঞা এবং শ্রম ও সময়কে উৎসর্গ করার জন্য। 
তিনি ইশতেহারে আরো উল্লেখ করে বলেন, নির্বাচনের মাঠে কথা মালার ফুলঝুরি ঝরছে-প্রতিশ্রুতির বন্যা বইছে এবং অসম্ভবকে সম্ভব করার নানা সব যাদু মন্ত্র উপস্থাপন করা হচ্ছে। এই শহরের পুঞ্জীভূত হাজারো সমস্যাকে পুঁজি করে আপনাদেরকে অবাস্তব সব উপন্নয়নের মহাপরিকল্পনার কথা বলা হচ্ছে। আমি ওসব বলবো না। আমি বলবো না-শহরের মশার কথা, ড্রেন ও জলাবদ্ধতার কথা। যানজট, সন্ত্রাস, গণ শৌচাগার কিংবা সবুজ শহর গড়ার কথাও বলবো না। কারণ ওসব বড় সস্তা কথা-ওসব বলতে কিংবা করতে খুব বেশি জ্ঞান-গরিমা-মেধা, পন্ডিত্য বা বাহদুরীর প্রয়োজন হয়না। নওগাঁ পৌরসভার সাধারণ পিয়ন-চাপরাশিও জানে যে ওই কাজ গুলো একজন পৌর মেয়রের সাধারণ দায়িত্ব।
তিনি সেখানে বলেন, মেয়র নির্বাচত হলে আমি সবার আগে একথা প্রমাণ করবো যো আমি আপনাদের লোক। আমার অফিসটি আসলে আপনাদেরই অফিস। আর পৌরভবন হলো আপনাদের বাড়ি। আপনারা পৌরভবনে যাবেন নিজেদের অধিকার নিয়ে-এক বুক আশা নিয়ে আর ফিরবেন হাসি মুখে। আপনাদের কথা দিচ্ছি বিশ্বাস করাবোই। আমি আপনাদের সমস্যা বুঝি এবং সেগুলোর জন্যে দিন রাত কাজ করে সুষ্ঠু সমাধানের চেষ্টা অব্যাহত রাখব। আমি পৌর মেয়র হিসেবে আপনাদের অভিভাবক হয়ে আপনাদের বিপদের সময় সহযোগিতা করবো-প্রয়োজনে আপনারা আমাকে পরামর্শ দিবেন এবং আমি সেবকরূপে সেবা করবো। 
ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল আরো বলেন, একটি সুশৃংখল, শান্তির ও অধিকার নিশ্চিতের সমৃদ্ধশালী শহর গড়ে তোলার জন্য আমি শহরবাসীর দৈনন্দিন সমস্যা জানার জন্যে প্রতি ওয়ার্ডের কাউন্সিলরদের সাথে নিয়ে সময় মত নিজে উপস্থিত থেকে মত বিনিময় সভা করবো। সেখানে থাকবে ওয়ার্ড বাসীর প্রকাশ্যে কথা বলার অধিকার। এছাড়াও জনগণের জরুরী প্রয়োজনের জন্যে উন্মুক্ত থাকবে আমার মোবাইল ফোন। পৌরসভারয় নাগারিক সেবার মান যুগপোযোগী করবো। একটি হেল্প লাইন থাকবে। পৌরভবনের একটি অনলাইন পেইজ এবং ডাটা ব্যাংক থাকবে। অনলাইনে পৌরকর প্রদানের ব্যবস্থা করা হবে। শহরের সন্ত্রান দমন ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পুরো পৌরসভা সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে। শহরের প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে সামাজির ক্লাবগুলিকে উয়ুথ ক্লাব, কর্মজীবিদের জন্যে প্রফেশনাল ক্লাব ও বয়স্কদের জন্যে সিনিয়র সিটিজেন ক্লাব এই তিনিটি ক্যাটাগরিতে চালানোর ব্যবস্থা নিব। পরিচ্ছন্ন বিনোদন ব্যবস্থা, মানসিক স্বাস্থ্য ও শারীরিক সুস্থতা কিবাশে সুযোগ সৃষ্টি করব ইনশাআল্লাহ। 
তিনি তার ইশতেহারে বলেন, শহরের সন্ত্রাস দমন, মাদক নিয়ন্ত্রণ, নারী নির্যতন রোধ, বাল্য বিবাহ, শিশু নির্যাতন, ভবঘুরে, মানসিক প্রতিবন্ধী, ছিন্নমূল ও ভিক্ষুকদের পুনর্বাসনে সরকারি বিভিন্ন সংস্থাকে সহযোগিতা ও পৌরভবনের স্বতন্ত্র কর্ম পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করব। পরিকল্পনার কথা যা করতে পারব শুধু তাই আপনাদের বলতে চাই। বিবেচনার জন্যে আপনাদের উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে। আপনারা যদি আমাকে যোগ্য মনে করেন তবে ‘নারিকেল গাছ’ প্রতিকে ভোট দিন। ইনশাআল্লাহ, কথা দিচ্ছি সর্বশক্তিমান মহান আল্লাহ্র সহায়তায় ঈমান ও বুদ্ধিমত্তা দিয়ে নওগাঁ শহরকে আপনাদের আকাঙ্খিত আধুনিক ও পরিচ্ছন্ন  শহরে পরিণত করব। 
দুর্বৃত্তের দ্বারা নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের বিচারে ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সার্বিক সহযোগীর প্রত্যাশা ও নির্বাচনী নিয়ম মেনে প্রচারণার ব্যতিক্রমী কৌশলের আশা নিয়ে জয়ের লক্ষে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন সঙ্গীদের নিয়ে।