একজন সাংবাদিককে ধরতে ৪০ জনের বাহিনী, বিস্মিত হাইকোর্ট

বিটিবি নিউজ রিপোর্ট : গভীর রাতে বাসায় গিয়ে সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগ্যানকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে জেল-জরিমানা দেওয়ার ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে দায়ের করা রিটের আংশিক শুনানিতে আজ রোববার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল ও বিচারপতি সরদার মো. রশিদ জাহাঙ্গীরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ বিষয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন। রিটের শুনানিতে আদালত বলেন, ‘একজন সাংবাদিককে ধরতে মধ্যরাতে তার বাসায় ৪০ জনের বিশাল বাহিনী গেল, এ তো বিশাল ব্যাপার! তিনি কি দেশের সেরা সন্ত্রাসী?’

একজন সাংবাদিককে ধরতে ৪০ জনের বাহিনী, বিস্মিত হাইকোর্ট

একই সঙ্গে মধ্যরাতে অভিযান পরিচালনার কারণসহ রাষ্ট্রপক্ষের কাছে পাঁচটি বিষয়ে তথ্য জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।  

রাষ্ট্রপক্ষের কাছে যে বিষয়গুলো হাইকোর্ট চেয়েছেন তা হলো, সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে দেওয়া সাজা ও দণ্ডের আদেশের অনুলিপি, অভিযান কারা পরিচালনা করেছে মোবাইল কোর্ট নাকি টাস্কফোর্স, রাতে অভিযান পরিচালনার বিষয়ে আইন অনুসারে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে কি না, অভিযান পরিচালনার কারণ এবং আইন অনুসারে ঘটনা কার সম্মুখে কখন সংঘটিত হলো তা জানাতে হবে।

এ বিষয়গুলো নিয়ে কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসকের সঙ্গে যোগাযোগ করে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল দেবাশীষ ভট্টাচার্য্য সোমবার আদালতকে জানাবেন। আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইশরাত হাসান ও ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল দেবাশীষ ভট্টাচার্য্য।