প্রতি মাসে পিরিয়ডের ব্যথা গরম চা পানেই মুক্তি!

বিটিবি নিউজ রিপোর্ট: প্রতিমাসে মেয়েদের পিরিয়ডস্ হওয়া খুবই সাধারণ ঘটনা, এটি একটি স্বাভাবিক শারীরিক প্রক্রিয়া বটে। এইসময় ১-২ দিন অনেক মেয়েরই তলপেটে মারাত্মক ব্যাথায় ভোগেন, যা মাঝে মাঝে অসহনীয় হয়ে ওঠে। এর ফলে, কাজ করার ক্ষমতা কমে যায় এবং স্বাভাবিক জীবন-যাপনে নানা সমস্যা দেখা দেয়। পিরিয়ডের আগে বা পিরিয়ডের সময় তলপেটে ব্যাথা খুবই সাধারণ লক্ষণ। বেশিরভাগ মেয়েরাই পিরিয়ডের প্রথম এবং দ্বিতীয় দিনে অসহ্য পেটের ব্যাথায় ভোগতে থাকেন।

প্রতি মাসে পিরিয়ডের ব্যথা গরম চা পানেই মুক্তি!

তাই, এক্ষেত্রে কিছু ঘরোয়া প্রতিকার, যেমন - কিছু খাবার খাওয়া বা কিছু পানীয় পান করার পরামর্শ দেওয়া হয় ব্যথা কমানোর জন্য। আর, পিরিয়ড চলাকালীন খুব সাধারণ একটি ঘরোয়া প্রতিকার হল গরম চা পান করা এবং এটি আশ্চর্যরকমভাবে খুব ভাল উপকারও দেয়। তাই প্রতি মাসে এইরকম পরিস্থিতিতে পড়লে এই ঘরোয়া প্রতিকারটি পরীক্ষামূলকভাবে নিজে নিজে ব্যবহার করে দেখতে পারেন। দেখে নিন কেন এবং কীভাবে চা পেটের ব্যাথা কমাতে সাহায্য করে।
অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য:  অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্যযুক্ত খাবার গ্রহণ করলে, তা ব্যাথা উপশম করতে সহায়তা করতে পারে। ক্যামোমিল, পেপারমিন্ট, গ্রিন টি, আদা চা, তুলসী চা ইত্যাদির মতো ভেষজ চা-গুলি দুর্দান্ত ঘরোয়া উপায়, যেগুলি প্রদাহ হ্রাস করতে পারে এবং ভাল অনুভব করায়।
পেশী ঠিক রাখতে: পেটের পেশীগুলিতে টান ধরতে পারে, যার কারণে ব্যথা হতে পারে। গরম জলের বোতল, হিটিং প্যাড, ইত্যাদির ব্যবহার পিরিয়ডের ব্যথা কমাতে পরামর্শ দেওয়া হয়। পাশাপাশি, চা জাতীয় উষ্ণ তরল পান করা, পেশী শিথিল করতে এবং ব্যথা কমাতে সহায়তা করে।
শক্তি ফিরে পেতে সাহায্য করে: পিরিয়ডের প্রথম দু'দিন অনেকেই নিজের শক্তি হারিয়ে ফেলে। চা কেবল পেটের টান এবং ব্যথা কমাতে সহায়তা করে না, এটি শক্তি পুনরুদ্ধার করতে এবং কাজ করার ক্ষমতা ফেরাতেও সহায়তা করতে পারে। আপনার সোনালী জীবনে সুখ ও শান্তি ফিরে পেতে নিজে সুস্থ থাকুনএবং অন্যকে পরামর্শ দিয়ে সহায়তা করুন।