January 21, 2019 12:56 am
Breaking News
Home / অন্যান্য / অর্থনীতি / অর্থ মন্ত্রণালয়ের জড়তা দূর করে সুষ্ঠুভাবে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় কামালের

অর্থ মন্ত্রণালয়ের জড়তা দূর করে সুষ্ঠুভাবে এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় কামালের

প্রায় ২৮ বছর পর সিলেট অঞ্চলের বাইরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেলেন কোনো মন্ত্রী। আর দায়িত্ব পেয়ে শপথ গ্রহণের আগেই ঘোষণা দিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের জড়তাগুলো বদলে দেয়ার কথা।
একাদশ জাতীয় সংসদে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়ার আগে গত পাঁচ বছর পরিকল্পনা মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। রবিবার বিকালে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা পেয়ে তিনি বলেছেন, ‘এতদিন অর্থ মন্ত্রণালয় যেভাবে চলছিল, সেভাবে আর নয়। আগামিকাল থেকেই নতুন করে কাজ শুরু হবে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের পরিসরও অনেক বাড়বে।’
তিনি বলেছেন, ‘মিথ্যা আশ্বাস দেবো না। আমার শিক্ষা ও অর্জিত জ্ঞান দিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়কে এগিয়ে নেব। আমি ফেল করব না।’
বিনিয়োগ ও ব্যাংকিং খাতের সব সমস্যার সমাধান হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে এগিয়ে যাব। আমি আগে দেখব কোন কোন জায়গায় কী কী সমস্যা আছে বা কী অবস্থায় আছে। তারপর কাজ করব। আমি কাজ করব নাম্বার বেইজড, অবজেকটিভ বেইজড এবং টাইম বেইজড।’
স্বাধীনতার পর প্রায় ২৮ বছর অর্থমন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছেন সিলেটের কেউ না কেউ। ১৯৮০-১৯৮১ মেয়াদে জিয়াউর রহমান সরকারের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন সাইফুর রহমান। এরপর এরশাদ সরকারের আমলে ১৯৮৩ থেকে ৮৪ সাল পর্যন্ত এবং ২০০৯ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত অর্থমন্ত্রী ছিলেন আবুল মাল আবদুল মুহিত। বাংলাদেশের ইতিহাসে এই দুজন মিলেই দিয়েছেন ২৪টি বাজেট।
বিশেষ করে ১৯৯১ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত প্রতিটি রাজনৈতিক সরকারের আমলেই অর্থমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন সিলেট অঞ্চলের কোনো মন্ত্রী। ১৯৯০ সালে সেনা শাসক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পতনের পর জাতীয় নির্বাচনে সিলেট-১ আসনে জিতে ক্ষমতায় আসা বিএনপির সাইফুর রহমান হন অর্থমন্ত্রী। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকারে আসার পর অর্থমন্ত্রী করা হয় শাহ আ স ম কিবরিয়াকে। তিনি বৃহত্তর সিলেটের হবিগঞ্জের নবীগঞ্জের বাসিন্দা। ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় ফিরলে আবার পাঁচ বছরের জন্য অর্থমন্ত্রী হন সাইফুর রহমান। এরপর ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনে জিতে ক্ষমতায় ফেরা আওয়ামী লীগ অর্থমন্ত্রী করে সিলেট-১ আসন থেকে জয়ী আবুল মাল আবদুল মুহিতকে।
২০১৪ সালের দশম সংসদ নির্বাচনেও অর্থ মন্ত্রণালয়ের পদটি পান মুহিত। তবে গত ৩০ ডিসেম্বরের একাদশ জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেননি প্রবীন এই রাজনীতিবিদ। মুহিত এর আগেই সংসদ থেকে বিদায় নিয়ে নেন। আর এতেই সুযোগ পেয়েযান সাবেক পরিকল্পনা মন্ত্রী মোস্তফা কামাল। ২০১৯ সালের শুরুতে অর্থাৎ, সোমবার থেকে শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে নতুন সরকার শপথ নিতে যাচ্ছে তাতে অর্থমন্ত্রী হচ্ছেন কুমিল্লা-১০ আসনের সংসদ সদস্য আ হ ম মুস্তফা কামাল।
এদিকে অর্থমন্ত্রী না পেলেও বৃহত্তর সিলেট এবার মন্ত্রিত্ব পেয়েছে পাঁচজন। যেখানে পূর্ণ মন্ত্রী হয়েছেন তিনজন, দুজন প্রতিমন্ত্রী। সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিতের আসনে তারই ভাই মোমেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী, সুনামগঞ্জ-৩ আসনের এম এ মান্নান পরিকল্পনা মন্ত্রী, মৌলভীবাজার-১ আসনের শাহাবউদ্দিন হয়েছেন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী। সিলেট-৪ আসনের ইমরান আহমেদ হয়েছেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী, আর হবিগঞ্জ-৪ আসনের মাহবুব আলী হয়েছেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী।

About BTB News

Check Also

রপ্তানিতে অর্ধেকেরও বেশি কর-সুবিধা দিবে নতুন সরকার

শিল্পখাতের উন্নয়ন ও বিস্তৃতির লক্ষ্যে রপ্তানিতে গত সেপ্টেম্বরেই উৎসে কর কমিয়ে দশমিক ৬০ শতাংশ করেছিল …

গত ১০ বছরে অর্থনীতিতে দক্ষতার স্বাক্ষর রেখেছেন শেখ হাসিনা

সরকার হলে চোঁখের পলকেই সমস্যার সমাধান করে ফেলা যাবে ভাবাটা অবান্তর। উন্নয়নের সুফল পেতে সরকারকে …

নৌসম্পদকে কেন্দ্র করে এগিয়ে যাচ্ছে দেশের জাহাজ নির্মাণ শিল্প

বর্তমানে জাহাজ নির্মাণ বাংলাদেশের একটি সম্ভাবনাময় এবং ক্রমবিকাশমান শিল্প। নদী পথেই দেশের অভ্যন্তরীণ বাণিজ্যের সিংহভাগ …

খুলে যাচ্ছে পর্যটন খাতের অপার সম্ভাবনার দুয়ার

নিউজ ডেক্স: ছাপ্পান্ন হাজার বর্গমাইলের বাংলাদেশে পর্যটন এলাকা নেহাতই কম নয়। বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত, এশিয়ার …

অনন্য গতিতে বাড়ছে দেশের তৈরী পোশাক রপ্তানি

ডেক্স নিউজ: তৈরী পোশাক শিল্প, যা বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে গড়ে দিয়েছে অনন্য একটি স্থান। দক্ষিণ এশিয়ায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *