June 25, 2018 12:18 pm
Breaking News
Home / অন্যান্য / ধর্ম / আজ পবিত্র লাইলাতুল কদর

আজ পবিত্র লাইলাতুল কদর

বিটিবি নিউজ ডেক্স: আজ ২৬ রমজান। দিনের শেষে আসন্ন রাতটি ২৭ রমজানের রাত হিসেবে চিহ্নিত। হাদিস শরীফের বর্ণনা অনুযায়ী আজকের রাতটি পবিত্র লাইলাতুল কদর হওয়ার সম্ভাবনা অধিক। হাজার মাসের ইবাদতের চেয়ে উত্তম শবে কদরের ইবাদত। এ রাতে অগণিত ফেরেশতাসহ হজরত জিবরাইল (আ.) দুনিয়ায় অবতীর্ণ হন এবং ফেরেশতারা দুনিয়ার সমস্ত অংশে ছড়িয়ে পড়েন। প্রত্যেক স্থানে স্থানে রুকু–সিজদা করেন। মুমিন নর–নারীর জন্য দোয়ায় মশগুল হন। (তাফসিরে ইবনে কাসির)।

মহান এই রাতে আল্লাহ অসংখ্য গুনাহগারকে মাফ করেন, তওবা কবুল করেন। এ রাতে মাতা–পিতা ও আত্মীয়স্বজনের রুহের মাগফিরাতের উদ্দেশ্যে তাঁদের কবর জিয়ারত ও তাঁদের জন্য দোয়া করলে আল্লাহ কবুল করেন।

রাসুল (সা.) এই রাতের যে দোয়া শিখিয়েছেন তার অর্থ হলো, ‘আল্লাহ, আজকের রাতে আমাকে শবে কদরের ফজিলত দান করুন, আমার কাজকর্ম সহজ করে দিন, আমার অক্ষমতা মার্জনা করুন, আমার পাপসমূহ ক্ষমা করুন।’ পবিত্র ও মহিমান্বিত রাতে আল্লাহর রহমত ও মাগফিরাত থেকে যারা বঞ্চিত থাকবে: মদখোর, মাদকদ্রব্য ব্যবসায়ী; মাতা–পিতার অবাধ্য সন্তান; আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্নকারী, ইচ্ছাকৃত নামাজ তরককারী, বিনা কারণে অপর মুসলমান ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নকারী। (তাফসিরে কাশফুল আসরার, প্রথম খণ্ড, পৃষ্ঠা: ৫৬৪)।

যারা জেনে বা না জেনে পাপকর্ম করেছেন এ রাতের বরকত পাওয়ার জন্য প্রথমেই তাদের তওবা করতে হবে। তাদের তওবা আল্লাহ কবুল করার পরই তারা এই রাতের ফজিলত লাভ করবে। এ রাতে যারা নিজের অপরাধ ক্ষমা চেয়ে এবং আল্লাহর রহমত কামনা করে কাঁদবে, তাদের দোয়া আল্লাহ্‌ কবুল করবেন। শুধু নামাজের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়; বরং এ রাতে তিলাওয়াতে কোরআন জিকির, ইস্তিগফার, তাসবিহ পাঠ, বেশি বেশি দরুদ শরিফ পড়া একান্ত করণীয়।

 

বৈশিষ্ট্য

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের উম্মতদের জন্য শবে কদর আল্লাহ পাকের মহান দান। এটা কেবল এ উম্মতেরই বৈশিষ্ট্য। হজরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, আল্লাহ তাআলা শবে কদর আমার উম্মতকেই দান করেছেন; পূর্ববর্তী উম্মতকে নয়। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে আল্লাহর পক্ষ থেকে সংবাদ দেওয়া হলো যে, আপনার উম্মতের বয়স অন্যান্য উম্মতের তুলনায় কম হবে, তখন তিনি আল্লাহর সমীপে নিবেদন করলেন, হে আল্লাহ! তাহলে তো পূর্ববর্তী উম্মতগণ দীর্ঘ জীবন পেয়ে ইবাদত ও সৎকর্মের মাধ্যমে যে স্তরে উপনীত হয়েছে, আমার উম্মত সে স্তর লাভ করতে পারবে না। এর পরিপ্রেক্ষিতে আল্লাহ তাআলা রাসুল আকরাম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে লাইলাতুল কদর দান করেন এবং এটাকে হাজার মাসের চেয়েও উত্তম বলে ঘোষণা দেন।

 

শবে কদরের রাত

মুসলিম শরীফে হজরত উবায় ইবনে কাআব (রা.) থেকে বর্ণিত হয়েছে, শবে কদর হলো রমজানের ২৭তম রাত। হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.), হজরত আবদুল্লাহ ইবনে উমর (রা.) হজরত মুয়াবিয়া (রা.) প্রমুখ সাহাবি থেকেও অনুরূপ বক্তব্য বর্ণিত আছে। কোরআন–হাদিসের সুস্পষ্ট বর্ণনাদৃষ্টে প্রতীয়মান হয় যে শবে কদর রমজান মাসে আসে; কিন্তু এর সঠিক কোনো তারিখ নির্দিষ্ট নেই। বুখারি শরিফ ও মুসলিম শরিফে বর্ণিত হাদিসের আলোকে বলা যায়, শেষ ১০দিনের বিজোড় রাতগুলোতে শবে কদর হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

প্রথমে একটি তারিখ বলা ছিলো কিন্তু পরে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে এর তারিখ ভুলিয়ে দেওয়া হয়, তখন তিনি বলেছিলেন, সম্ভবত এতে তোমাদের জন্য কল্যাণ নিহিত আছে। অর্থাৎ যদি এ রাত নির্দিষ্ট করে দেওয়া হতো, তবে অনেক অলস প্রকৃতির মানুষ শুধু এ রাতে ইবাদত–বন্দেগিতে নিয়োজিত হতো। অবশিষ্ট সারা বছর ইবাদত–বন্দেগি না করে আল্লাহ তাআলার রহমত হতে বঞ্চিত থাকত। দ্বিতীয়ত, এ রাত নির্দিষ্ট করা হলে কোনো ব্যক্তি ঘটনাক্রমে রাতটিতে ইবাদত করতে না পারলে সে দুঃখ ও আক্ষেপ প্রকাশ করতে করতে অনেক সময় নষ্ট করে দিত। এতে সে মাহে রমজানের বরকত থেকে বঞ্চিত হয়ে যেত। এ রাত যেহেতু নির্দিষ্ট করা হয়নি, সে জন্য এ রাতের সন্ধানে আল্লাহর সব বান্দা প্রতি রাতে ইবাদত–বন্দেগি করে থাকেন এবং প্রতি রাতের জন্য পৃথক পৃথক পুণ্য অর্জন করতে থাকেন।

লাইলাতুল কদর উম্মতে মোহাম্মদীর একক সৌভাগ্য। আর কোনো নবীর উম্মতকে এ ধরনের ফজিলতপূর্ণ কোনো রাত বা দিন দান করা হয়নি। আগেকার নবীদের উম্মতরা অনেক আয়ু পেতেন। এজন্য তারা অনেকদিন ইবাদত করারও সুযোগ পেতেন। সে তুলনায় উম্মতে মোহাম্মদীর আয়ু নিতান্তই কম। এজন্য আল্লাহ তায়ালা তার বিশেষ দয়ায় মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লামের উম্মতকে মহিমান্বিত এ রাত দান করেছেন।

About meta khan

Check Also

ফিতরা সর্বনিম্ন ৭০, সর্বোচ্চ ২৩১০ টাকা

বিটিবি নিউজ ডেক্স: এ বছর ফিতরা জনপ্রতি সর্বনিম্ন ৭০ টাকা ও সর্বোচ্চ ২ হাজার ৩১০ টাকা …

বাংলাদেশের ইসলামের প্রচার ও প্রসারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভূমিকা

বিটিবি নিউজ ডেক্স: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি, একটি নতুন মানচিত্রের …

বর্তমান সরকারের অবদানে তৈরী হচ্ছে মডেল মসজিদ

বিটিবি নিউজ ডেক্স: আওয়ামীলীগ সরকারের মেগা প্রকল্পের গুরুত্ব অনুযায়ী সর্বাধিক গুরুত্ব পেয়েছে প্রতিটি জেলায় মেগা মসজিদ …

বিশ্বের দীর্ঘ সময় ধরে রোজা রাখেন যে দেশের মুসলিমরা

বিটিবি নিউজ ডেক্স: সূর্য ওঠার পর আর জল/পানি স্পর্শ করা যাবে না। পবিত্র রমজানের এটাই নিয়ম। …

নবীজি সা. যেভাবে রোযা পালন করতেন

বিটিবি নিউজ: এবাদতের বিবিধ উপকরণ দ্বারা রাসূল সা. রোযার দিবসগুলোকে শোভিত করতেন- অত্যন্ত আগ্রহ ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *