January 20, 2019 12:34 pm
Breaking News
Home / রাজনীতি / আন্তর্জাতিক অগ্রহণযোগ্যতার প্রশ্নে তারেকের অপসরণ চাইছে স্বয়ং বিএনপি নেতারাই

আন্তর্জাতিক অগ্রহণযোগ্যতার প্রশ্নে তারেকের অপসরণ চাইছে স্বয়ং বিএনপি নেতারাই

নিউজ ডেস্ক: আন্তর্জাতিক অগ্রহণযোগ্যতার প্রশ্নে লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের অপসরণ চায় স্বয়ং বিএনপি নেতারা। এ দাবি পুরনো হলেও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে তারেক রহমান দণ্ডিত হওয়ার পর বিএনপি নেতারা তারেক রহমানকে দল থেকে সরে দাঁড়াতে দলের মহাসচিবের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছে। এ ব্যাপারে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য দলের শীর্ষস্থানীয় নেতারা চাপও দিচ্ছেন বলে জানা গেছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, ড. আব্দুল মঈন খান, লে. জে. (অব) মাহবুবুর রহমানসহ খালেদাপন্থী নেতারা। তারা সরাসরি সাক্ষাতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের সঙ্গে পরামর্শ করে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তও দিয়েছেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য লে. জে. (অব) মাহবুবুর রহমান, বিএনপির স্থায়ী কমিটির অন্তত দু’জন সদস্য এবং বিএনপির আরও গুরুত্বপূর্ণ নেতা তারেককে নেতৃত্ব থেকে সরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। গত ১০ অক্টোবর ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের পরে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে মাহবুবুর রহমান বলেছেন, এই রায় নিয়ে যে সমালোচনা বিএনপি করছে তা ঠিক আছে। তবে যেহেতু আইনী লড়াইয়ে বিএনপি অংশগ্রহণ করেছিল এবং প্রতিযোগিতা করে হেরেছে, তাই আপাতত তারেক রহমানকে বিএনপির চেয়ারপারসনের পদ থেকে সরানো যুক্তিযুক্ত হবে। যুক্তি হিসেবে দলের মহাসচিবকে তিনি বলেছেন, আন্তর্জাতিকভাবে এটা গ্রহণযোগ্য নয়। আমরা যে কথাগুলো বলছি, বিচার নিরপেক্ষ হয়নি কিংবা আদালত পক্ষপাতভাবে রায় দিয়েছে- সেটা আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হবে না। এজন্য বিএনপির ভাবমূর্তির স্বার্থেই তারেক রহমানকে এখন আপাতত নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া উচিত।

একইরকম অভিমত ব্যক্ত করেছেন স্থায়ী কমিটির আরও একজন সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান। তিনি ভারতীয় দূতাবাসের একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠকে ব্যক্তিগত মতামত হিসেবে কূটনৈতিকদের বলেছেন, তিনিও মনে করেন এখন তারেকের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান থাকা উচিত নয়। এর দুটি কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, প্রথমত, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলার রায়। অন্যটি হলো, দীর্ঘদিন ধরে তারেকের বিদেশে অবস্থান। তিনি মনে করেন, এই সংকটকালীন সময়ে এমন একজন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দরকার যাকে সার্বক্ষণিক পাওয়া যায়। তিনি সিদ্ধান্ত নিতে পারে। অবস্থানগত কারণে তারেককে সব নেতারা সময়মতো পাচ্ছে না।

তারেক রহমানকে নিয়ে আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় পর্যায়ে যে অস্বস্তি ও আপত্তি তৈরি হয়েছে তা কারো অজানা নয়। তবে দলের অন্যান্য নেতাদের মতো মির্জা ফখরুল, মওদুদ আহমেদের মতো নেতারাও আন্তর্জাতিক অগ্রহণযোগ্যতা বিবেচনায় দলীয় প্রধানের ভূমিকা থেকে তারেক রহমানের অপসারণ চায়। এখন শুধু তারেকের কাছে এ প্রস্তাব পৌঁছানো বাকি। কিন্তু তারেককে এ বিষয়ে অবগত করার সাহস কেউ পাচ্ছে না বলে দলীয় একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

About BTB News

Check Also

মির্জা ফখরুলকে বিতাড়িত করে মিন্টুকে মহাসচিব বানাতে লবিং শুরু!

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অভাবনীয় পরাজয়ে বিএনপির নেতৃত্ব দেখা দিয়েছে হতাশা। দলের ভেতর …

ড. কামালের নীতি বাক্য এড়িয়ে প্রতিরোধের রাজনীতিতে ফিরতে চায় ২০ দলীয় জোট

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অকল্পনীয় পরাজয়ের পর বিএনপির নেতৃত্ব পরিবর্তন এবং ২০ দলীয় …

ড. কামালের কথায় ক্ষুব্ধ খালেদা জিয়া, ভেঙে যাচ্ছে ঐক্যফ্রন্ট

নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর আরামবাগে শনিবার (১২ই জানুয়ারি) বিকেলে গণফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির এক সভায় বিএনপিকে জামায়াত …

ভুঁইফোড় শ্রমিক সংগঠনের অন্তরালে আন্দোলনকে হাতিয়ার বানাতে তৎপর বিএনপি-জামায়াত চক্র

নিউজ ডেস্ক: ৩০ জানুয়ারি ভূমিধ্বস বিজয়ের পর আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করার পরপরই রাজধানীর উত্তরায় …

দোষারোপ খেলায় মত্ত বিএনপি; পরাজয়ে দেশ ও বিদেশে ক্ষতিগ্রস্ত বিএনপি

নিউজ ডেস্ক: একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিপর্যয়ের নেপথ্যে নিজেদের ভুল ও দুর্বলতা নিয়ে নানামুখী হিসাব-নিকাশ কষেও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *