December 14, 2018 10:40 pm
Breaking News
Home / জাতীয় / শেখ হাসিনার সক্রিয় ভূমিকায় রাজধানীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে

শেখ হাসিনার সক্রিয় ভূমিকায় রাজধানীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে

নিউজ ডেক্স: প্রাধানমন্ত্রীর সক্রিয় ভূমিকায় মঙ্গলবার সকাল থেকে রাজধানীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে থাকে। আজও রাজধানীর কোথাও কোনও শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল করেনি। যানবাহন চলাচলও স্বাভাবিক রয়েছে। তবে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বিভিন্ন এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সকাল থেকে মহানগরীর শাহবাগ, সায়েন্স ল্যাব, রামপুরা, বাড্ডা, মিরপুর ১০, উত্তরা হাউজ বিল্ডিং, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় শিক্ষার্থীদের কোনও জমায়েত দেখা যায়নি। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোয় ক্লাস শুরু হয়েছে। তবে গত কয়েকদিনে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ চলাকালীন পুলিশের সঙ্গে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনায় রাজধানীতে গণপরিবহনের সংখ্যা তুলনামূলক কম দেখা গেছে। ট্রাফিক পুলিশকে বিভিন্ন সড়কে পরিবহনের কাগজপত্র চেক করতে দেখা গেছে। এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মশিউর রহমানের নেতৃত্বে ঢাকা মহানগর পুলিশের একটি মোবাইল টিম এবং বিআরটিএ’র ৫টি মোবাইল কোর্ট রাজধানীতে পরিচালিত হচ্ছে।

এদিকে, ঈদের আগাম টিকিট নিতে বাস কাউন্টারগুলোতেও উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

বিআরটিএ’র উপ-পরিচালক (প্রকৌশলী) মাসুদ আলম জানান, সড়কে যানবাহনের অব্যবস্থাপনা প্রতিরোধে আমাদের ৫টি মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হচ্ছে।

গত ২৯ জুলাই দুপুরে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের অদূরে বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। বিমানবন্দর সড়কের বামপাশে বাসের জন্য অপেক্ষা করার সময় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস তাদের চাপা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ দুর্ঘটনায় আরও কয়েকজন আহত হন। তাদের কয়েকজনকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়।

এরপর থেকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে গত ৬ আগস্ট পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ মিছিল করে শিক্ষার্থীরা। প্রথমে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী ও পরে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ চলে। একটি কুচক্রী মহল শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে ভীন্ন খাতে প্রভাহিত করার চেষ্টা করে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সক্রিয় ভূমিকার ফলে তাদের ষড়যন্ত্র সফল হয়নি।

দুর্ঘটনায় নিহত প্রতি পরিবারকে ২০ লাখ টাকার পারিবারিক সঞ্চয়পত্র অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ফুটওভার ব্রিজ ও আন্ডারপাস নির্মাণে সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দেন। এ ছাড়া শহীদ রমিজ উদ্দীন ক্যান্টনমেন্ট কলেজকে ৫টি বাস দেওয়ার নির্দেশও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে নতুন সড়ক পরিবহন আইন মন্ত্রীসভায় পাশ করা হয়েছে। এরপর থেকে রাজধানীর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে থাকে।

About BTB News

Check Also

১০ বছরে প্রথম আলো সম্পাদকের সম্পদ বেড়েছে ৪১৯গুণ, ব্যবস্থা গ্রহণ করার পরামর্শ আরেক সম্পাদকের

‘বদলে যায়, বদলে দাও’ স্লোগানে দেশব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠান করে সাধারণ মানুষদের মনে জায়গা করার চেষ্টা …

বিশ্বজুড়ে ২৬-তম, বাংলাদেশে অদ্বিতীয় শেখ হাসিনা

পারিবারিক পাঠশালা ছেড়ে মাত্র সাত বছর বয়সে পরিবারের সাথে মোগলটুলির রজনীবোস লেন থেকে আজকের জাতিসংঘ, …

ভোট নষ্ট করার আগেই চিনে রাখুন বর্ণচোরা জাতীয় বেইমানদের

বর্ণচোরা এবং সুবিধাবাদী রাজনীতিবিদ হিসেবে বাংলাদেশের ইতিহাসে তারা বেশি পরিচিত।  বিভিন্ন সময়ে স্বৈরাচারদের দোসর হয়ে …

Prothom Alo and other national dailies are spreading lies about the ‘number of cancellation of nominations’

News Desk: Prothom Alo, Daily Star, Naya Diganta, Shangram are the most popular national daily …

‘মনোনয়ন বাতিলের সংখ্যা’ নিয়ে মিথ্যাচার ছড়াচ্ছে প্রথম আলো’সহ একাধিক জাতীয় দৈনিক

নিউজ ডেস্ক: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র বাতিলের নিয়ে ভুল তথ্য ছড়াচ্ছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *