January 21, 2019 1:00 am
Breaking News
Home / জাতীয় / সুদিন ফিরছে সোনালী আঁশে

সুদিন ফিরছে সোনালী আঁশে

নিউজ ডেক্স: সোনালী আঁশের দেশ বলে পরিচিত বাংলাদেশ সোনালী আঁশের ঐতিহ্য হারাতে বসেছিল। কিন্তু সরকারের নানাবিধ উদ্যোগের ফলে সোনালী আঁশের সোনালী দিন আস্তে আস্তে ফিরতে শুরু করেছে। এর ধারাবাহিকতায় সদ্য সমাপ্ত অর্থবছরে পাট ও পাটজাত পণ্যের রপ্তানি আয় শত কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরের চেয়ে সাড়ে ৬ শতাংশ বেশি।

বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হালনাগাদ প্রতিবেদনের তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১৭-১৮ অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১০৫ কোটি ৫০ লাখ ডলার। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে পাট ও পাটজাত পণ্যের রপ্তানি আয় ছিল ৯৬ কোটি ২৪ লাখ ডলার। এই হিসাবে আয় বেড়েছে ৬ কোটি ৩১ লাখ টাকা।

ইপিবির তথ্য থেকে আরও জানা যায়, গত অর্থবছরে কাঁচা পাট থেকে আয় হয়েছে ১৫ কোটি ৫৬ লাখ ডলার। পাট সুতা ও কুণ্ডলী থেকে ৬৮ কোটি ৭৭ লাখ ডলার আয় হয়েছে। এ ছাড়া ১২ কোটি ২৮ লাখ ডলারের পাটের বস্তা ও ব্যাগ রপ্তানি করা হয়েছে। পাটজাতের অন্যান্য পণ্য থেকে রপ্তানি আয় হয়েছে ৯ কোটি ৯৩ লাখ ডলার। দেশে বর্তমানে রাষ্ট্রায়ত্ত খাতে মোট ২২টি পাটকল চালু রয়েছে এবং বেসরকারি খাতে রয়েছে প্রায় ২০০ পাটকল। এর বাইরে বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান পাটজাত পণ্য উৎপাদন ও রপ্তানি করে খাতে।

সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশী বিজ্ঞানীরা পাটের তৈরী পলিথিন ব্যাগ আবিষ্কার করেন। বাংলাদেশের পাটশিল্পের শেষ সংযোজন হচ্ছে পাটের তৈরী পলিথিন ব্যাগ। এটি একাধারে পরিবেশবান্ধব ও বারবার ব্যবহারযোগ্য। বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ এবং বিশ্ববাজারে পাটের তৈরী পলিথিন ব্যাগের বাজার সৃষ্টি হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে পাটের তৈরী পলিথিন ব্যাগ বাংলাদেশ বিশ্ববাজারে রপ্তানির মাধ্যমে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনের অপার সম্ভাবনা রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যানের মতে , পাটের নীতি সহায়তার পাশাপাশি পণ্যের বৈচিত্র্যকরণে নগদ সহায়তা বাড়ানো হয়েছে। বিশ্বে প্রায় ৬০টি দেশে বাংলাদেশের পাট ও পাটজাত পণ্যের চাহিদা রয়েছে বলে তিনি জানান। তিনি আরও বলেন, সরকার মানসম্মত পাট উৎপাদন ও পণ্য বহুমুখীকরণে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। নগদ সহায়তাসহ বিভিন্ন ধরনের প্রণোদনা দেয়া হচ্ছে।

About BTB News

Check Also

কর্ণফুলী টানেলের পর এবার যমুনা পারাপারে টানেল নির্মাণের উদ্যোগ

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ‘সেতু তৈরি হলে অনেক ক্ষেত্রেই নদীর পানি প্রবাহ বিঘ্নিত হয়। যেখানে নদীর তলদেশে …

উন্নত দেশ তৈরিতে দুর্নীতি রোধের বিকল্প নেই, জিরো টলারেন্সে প্রধানমন্ত্রী

উন্নত রাষ্ট্র গড়ার লক্ষ্যে একেবারে তৃণমূল পর্যায় থেকে শুরু করে শীর্ষ পর্যায়ের প্রতিটি শাখা পর্যন্ত …

লিঙ্গবৈষম্য কমিয়েছে, নারীর উন্নয়নে আরও নিশ্চিত হতে বদ্ধপরিকর সরকার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থায় বিভিন্ন দিক দিয়েই …

সরকারের লক্ষ্য উন্নত রাষ্ট্র গড়া, সন্ত্রাসবাদ নিয়ন্ত্রণে যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের চেয়েও এগিয়ে

শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকারের অধীনে টানা গত দশটি বছরে তথ্যপ্রযুক্তি, খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, বিদ্যুৎ, …

খাদ্য চাহিদা পূরণে ‘সী-উইড’

বিশ্বব্যাপী সামুদ্রিক খাদ্যের ব্যবহার বাড়ছে দিনদিন। পুষ্টিমান ভালো ও অর্থকরী হওয়ায় এর দিকে ঝুঁকছে অনেকেই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *