নওগাঁয় হত্যা মামলায় ১জনের ৫ বছরের জেল

নওগাঁয় হত্যা মামলায় ১জনের ৫ বছরের জেল

 স্টাফ রিপোর্টার: নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার পলাশাবাড়ী গ্রামের মজির উদ্দিনকে বাঁশের লাঠির আঘাতে হত্যা মামলায় একজনকে ৫ বছরের জেল দিয়েছে আদালত। অন্য একজনকে বেকসুর খালাস দেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে অতিরিক্ত দায়রা জজ ২য় আদালত, নওগাঁ এর বিজ্ঞ বিচারক গাজী দেলোয়ার হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় মামলার ১নং আসামী দণ্ডপ্রাপ্ত মো: শফিউদ্দিন সরকার এবং মামলার ২নং আসামী মো: বেলাল হোসেন উপস্থিত ছিল।

সাজাপ্রাপ্ত আসামী মো: শফিউদ্দিন সরকার ধামইরহাট উপজেলার পলাশবাড়ী গ্রামের মৃত অছিমুদ্দিন সরকারের পুত্র।  ধামইরহাট উপজেলার পলাশবাড়ী গ্রামের মৃত কছিমুদ্দিন এর পুত্র বেলাল হোসেনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

মমলা সূত্রে জানা গেছে, পৌত্রিক জোতজমির সীমানাকে কেন্দ্র করে ২০০৭ সালের ২০ জুলাই পারিবারিক কলহের জের ধরে বেলাল হোসেন একটি বাঁশের লাঠি শফিউদ্দিন সরকারের হাতে দিলে শফিউদ্দিন সরকার মজির উদ্দিনের মাথায় আঘাত করলে ততক্ষনাত ঘটনাস্থলেই মাটিতে লুটিয়া পড়ে। অজ্ঞান অবস্থায় তাকে স্থানীয় ধামইরহাট স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সে ভর্তি করান। পরবর্তীতে তার অবস্থা আশংকাজনক হলে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২০০৭ সালের ২১ জুলাই সকাল সোয়া ৬টার দিকে মারা যান তিনি। এ ঘটনায় মৃত মজির উদ্দিনের ছেলে সাখাওয়াত হোসেন বাদী হয়ে ধামইরহাট থানার একটি এজাহার দায়ের করেন।

আদালতে আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি ৩০২ এবং ৩৪ ধারায় অভিযোগ গঠন করা হলেও দীর্ঘ শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হলে পেনাল কোডের ৩০৪ পার্ট ২ ধারায় মামলার ১নং আসামি শফিউদ্দিন সরকারকে ৫ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেন। এ মামলার ২নং নম্বর আসামি বেলাল হোসেনকে বেকসুর খালাস দেন আদালত।